Unlimited Wordpress themes, plugins, graphics & courses! Unlimited asset downloads! From $16.50/m
Advertisement
  1. Web Design
  2. Inspiration

সৃজনশীলদের জন্য ১৫টি বেস্ট ওয়ার্ডপ্রেস থিম

by
Length:LongLanguages:

Bengali (বাংলা) translation by Arnab Wahid (you can also view the original English article)

পেশায় যদি আপনি হন ফটোগ্রাফার, পেইন্টার বা ওয়েব ডিজাইনার, একটি জিনিষ আপনার অবশ্যই লাগবেঃ সেটি হচ্ছে একটি পোর্টফোলিও। নিজের কাজের  অভিজ্ঞতা আর কাজের পদ্ধতি সম্ভব্য ভবিষ্যৎ ক্লায়েন্টদের কাছে তুলে ধরার সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে একটি পোর্টফোলিও।

একটি উদাহরণ দেই। একজন ফটোগ্রাফারের পোর্টফোলিও সাধারণত সাদাকালো থিমের হয়, যেখানে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে, বিভিন্ন রকমের ছবি দিয়ে তার সবচেয়ে ভালো কাজগুলো ফিচার করা থাকে। সেভাবেই, একজন ওয়েব ডেভেলাপারের পোর্টফোলিও তার ক্লায়েন্ট প্রজেক্ট ও ওয়ার্কফ্লো সম্পর্কে পরিষ্কার ধারনা দেয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়।

পোর্টফোলিও বিভিন্ন রকমের ও স্টাইলের হতে পারে। তা সেটা যেই রকমই হোক না কেন, পোর্টফোলিও সব সময়ই ইম্পর্টেনট হয়ে থাকে। নিজের কাজ টার্গেট অডিয়েন্সের কাছে নতুন ক্লায়েন্ট বা কাস্টমার খুজে পাওয়ার আশায় একটি পোর্টফোলিওর মাধ্যমে তুলে ধরার জন্য, আপনি একটি সুন্দর ওয়ার্ডপ্রেস পোর্টফোলিও থিম ব্যবহার করতে পারেন। 

ভালো পোর্টফোলিও ওয়ার্ডপ্রেস থিমের বৈশিষ্টগুলো

যদিও পোর্টফোলিও থিম গুলো বিভিন্ন রকমের দেখতে হয়ে থাকে, থিমগুলোর মধ্যে সিমিলার কিছু ফিচার সর্বদা দ্যমান।  এই ফিচারগুলো জানা থাকলে ডিশিসন মেকিং প্রসেসে সুবিধা হয়।  তাহলে একটি ভালো পোর্টফোলিও থিম কেনার আগে অপশনগুলো ভালোভাবে কম্পেয়ার করে নেয়ার সুযোগ থাকে।  কিছু জনপ্রিয় ফিচার হচ্ছেঃ

  • ডেডিকেটেড পোর্টফোলিও পেজ লেআউটস। এটি দিয়ে কোডে হাত দেয়া ছাড়াই পোর্টফোলিও পেইজের লুক এন্ড ফিল সহজে কাস্টমাইজ করা যায়। 
  • মেসনারি গ্রিড, ও লিস্ট অপশন। এটি পেজের কন্টেন্টে বৈচিত্র আনে, দৃষ্টিনন্দন করে তোলে ও পাঠকের আগ্রহ বাড়াতে সাহায্য করে। 
  • পোর্টফোলিও আইটেড ডেসক্রিপশনস। প্রজেক্ট ডেসক্রিপশন ভিজিটরের কাছে প্রজেক্টের কাজ ও ডিটেইল তুলে ধরতে সাহায্য করে। 
  • স্লাইড শো। ইন্টার‍্যাকটিভ ইলিমেন্ট একজন ভিজিটরের আগ্রহ উদ্রেকে সহায়তা করে।
  • প্যারালাক্স স্লাইডার ও ব্যাকগ্রাউন্ড। স্মুদ মুভিং পার্টস আপনার কাজের প্রতি ভিসুয়াল ইন্টারেস্ট ও সাপোর্ট তৈরি করে। 
  • ভিডিও ব্যাকগ্রাউন্ডস। ভিডিও ব্যাকগ্রাউন্ড সাপোর্ট আপনার সাইটকে ভিজিটরদের কাছে আরও আকর্ষনীয় করে তুলতে সাহায্য করবে। আপনার পোর্টফোলিওতেই এটি বৈচিত্র নিয়ে আসবে। 
  • গ্যালারী গ্যালারি পোর্টফোলিও সাপ্লিমেন্ট হিসেবে কাজ করে, এতে একটির বেশি ইমেজ বা ভিডিও একসাথে শো করা যায়, একটি পোর্টফোলিও পিস হিসাবে। 

এগুলো ওয়ার্ডপ্রেস পোর্টফোলিও থিমের সামান্য কয়টি উদাহরণ মাত্র। মানুষ ভেদে এগুলার ব্যবহারে পার্থক্য থাকে। ThemeForest এ WordPress portfolio themes সেকশন ব্রাউজ করে দেখতে পারেন। আপনি এখানে মানানসই অনেক থিম পাবেন।

WordPress portfolio themes available on ThemeForest
Best WP Portfolio Themes for Creatives এর উপর এখন Envato Market এ (ThemeForest) সেল চলছে।

সেরা ওয়ার্ডপ্রেস থিমগুলো বেছে নিয়ে এখনে তুলে ধরা হল, এগুলা পোর্টফোলিও সাইট বানানোর জন্য বেষ্ট। এখানে প্রতিটি থিমই আমাদের টপ সেলারদের বানানো। এগুলা অনেক মানুষ ব্যবহার করে, এবং সকলেই এই থিম পছন্দ করে।

সৃজনশীলদের জন্য ১৫টি বেস্ট ওয়ার্ডপ্রেস থিম - অনলাইন পোর্টফোলিও বানানোর জন্য

একটি ভালো পোর্টফোলিও থিমে কি কি ফিচার থাকে, সেটা দেখার জন্য আসুন আমাদের শোকেস দেখি। এখানে বাজারে উপলভ্য ১৫ টি বেষ্ট (বেষ্ট সেলার) পোর্টফোলিও থিম তুলে ধরা হলঃ

১। Ronneby - High-Performance WP Portfolio Theme

নিজের কাজ একটি ভালো ক্যানভাসের মাধ্যমে অনলাইনে উপস্থাপন করতে Ronneby থিমটি বেষ্ট! বেশ কয়েকটি কারনেই এটি অনেক হাই পার্ফর্মেন্স একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম। এটা দিয়ে প্রায় সব রকম সাইট বানানো সম্ভব। এটা দিয়ে চোখ ধাঁধানো পোর্টফোলিও বানানো যায়।

এতে অনেক রকম ডিসপ্লে অপশন, ৪০টি লেআউট, অনেক পোর্টফোলিও অপশন, ডেমো ও কয়েক রকম স্লাইডার প্লাগিন সহ, ভিজুয়েল কম্পোজার এর মত অনেক প্লাগিন রয়েছে।

এই থিম রেটিনা রেডি, এতে ওয়ান ক্লিক ইন্সটলের সুবিধা রয়েছে, ৮টি প্রিমেড হেডার, মেগামেন্যু, পোর্টফোলিও হভার, ২৩ টাইপের পোর্টফোলিও পেজ, ৪৮ স্টাইল উইজেট, ১৭০০রও বেশি ফন্ট আইকন এতে রয়েছে এবং এটি WooCommerce রেডি। এতে সাপোর্ট ও আপডেট সুবিধাও দেয়া হয়।

Ronneby WP Creative Folio Theme

২। Kalium - Creative WP Theme for Professionals

Kalium ক্রিয়েটিভ কর্মজীবিদের জন্য একটি থিম। এতে অনেক ক্রিয়েটিভ ফিচার ও ক্লায়েনটদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার মত ইলিমেন্ট রয়েছে। এতে অনেক প্রিমেড ডেমো রয়েছে, ওয়ান ক্লিক ইন্সটল ও টাইম সেভিং ফিচারও রয়েছে।

তে Visual Composer, Revolution Slider, এবং LayerSlider এর মত প্লাগিন রয়েছে যার জন্য অনেক সহজে এটি কাস্টমাইজ করা যায়। এতে পোর্টফোলিও হভার অপসশন, হার স্টাইল, ড্রিবল পোর্টফোলিও ইন্টিগ্রেশন সহ ৩০ টাইপের পোর্টফোলিও সাপোর্ট ও শর্টকোড সাপোর্ট রয়েছে। ৭০০ গুগল ফন্ট, অগণিত স্কিন, ৮০০ আইকন, ফুটার স্টাইল ও রেটিনা রেডি সাপোর্টও আছে।

নিজের কাজ এই থিম দিয়ে অনেক সহজে উপস্থাপন করা যায়!

Kalium Creative Portfolio WordPress Theme

৩। Porto - Responsive WordPress Theme for Creatives

Porto আরেকটি চমৎকার পোর্টফোলিও থিম, এতে অনেক অপশন আছে, এটি দিয়ে কর্পোরেট লুকিং ওয়েবসাইট বানানো অনে সহজ। এতে ২৫টি হোমপেজ ভার্সন রয়েছে, এতে লাইট ও ডার্ক স্কিন অপশন রয়েছে, RTL সাপোর্ট, ও এটি পাওয়ারফুল অ্যাডমিন প্যানেল রয়েছে। যাতে সহজেই কাস্টমাইজেশন করা যায়।

এই থিম বেশ ফাস্ট, এতে WooCommerce সাপোর্ট, মেগা মেন্যু, অগণিত হেডার লে আউট, মোবাইল সাপোর্ট, রেটিনা অপটিনাইজেশন ফিচার আছে। সাথে সাপোর্ট ও ডকুমেন্টেশনও আছে। Visual Composer ও Master Slider থিমের সাথে দেয়া আছে।

Porto - Responsive WordPress Theme for Creatives

৪। TheFox - Creative Multi-Purpose WordPress Theme

TheFox একটি মাল্টিপারপাস ওয়ার্ডপ্রেস থিম, এটি দিয়ে সব রকমের পোর্টফোলিও সাইট বানানো যায়। এটি রেস্পন্সিভ একটি থিম, এতে অনেক সুবিধামত অনেক কাস্টমাইজেশন অপশন রয়েছে।

এতে অনেক ডেমো দেয়া আছে, ডকুমেন্টেশন, সাপোর্ট ও ভিডিও টিউটোরিয়ালও রয়েছে। এতে ৩০টি হোমপেজ ডিজাইন, ২৫০শ ডিজাইন ডিটেইলস, থিম অপশন প্যানেল, ভিসুয়্যাল কম্পোজার, প্রিমিয়াম স্লাইডার ও শর্টকোড জেনারেটার রয়েছে। আরও আছে ওয়ান ক্লিক ইন্সটল সুবিধা, মেজা মেন্যু, WooCommerce সাপোর্ট, সিএসেস অ্যানিমেশন, অগণিত কালার চয়েস, হেডার অপশন সহ আরও অনেক কিছু। এই থিমটি ক্রিয়েটিভ পোর্টফোলিও বানানোর জন্য বেষ্ট।

The Fox - best portfolio wordpress themes

৫। Unicon - Design-Driven WordPress Portfolio Theme

এই থিমটি ডিজাইনারদের কথা চিন্তা করে বানানো, এতে অনেক কাস্টমাইজেশন অপশন রয়েছে, কিন্তু তাতে ইউজারদের কোন সমস্যা হয়না। এতে ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ পেজ বিন্ডার আছে, এটি রেসপনসিভ ও রেটিনা রেডি, ৫০টি পেজ বিল্ডার ইলিমেন্ট রয়েছে ও এতে ওয়ান পেইজ লে আউট আছে। এতে মাল্টিপল হেডার, স্টিকি হেডার, রেভোলিউশন স্লাইডার, মেজা মেন্যু, ওয়ান ক্লিক সেটাপ, ৬৫০ টি আইকন ও ৫০টি প্রিমেড লেআউট আছে। এই থিমের কোড হাই কোয়ালিটি, এতে অনেক ফিচার আছে, নিয়মিন ফ্রি আপডেট দেয়া হয়, আর অনেক সহজ কাস্টমাইজেশন অপশন রয়েছে!

Unicon - Creative WordPress Portfolio Theme

৬। Uncode - Multi-Use WordPress Portfolio Theme

আরেকটি বেস্টসেলিং পোর্টফোলিও থিম হচ্ছে Uncode. এটি একটি মাল্টিইউজ থিম, তাই এটি দিয়ে যে কোন রকমের সাইট বানানো যায়। এতে অনেক পোর্টফলিও ফিচার রয়েছে, যার ফলে এটি ডিজাইনার, আর্টিস্ট, ফোটোগ্রাফার ইত্যাদি পেশার পোর্টফোলিও সাইট বানানোর জন্য অনেক সুবিধাজনক। এতে Visual Composer, Layer Slider, Revolution Slider, ও iLightbox এর মত অনেক প্লাগিন রয়েছে।

এতে WooCommerce কম্প্যাবিলিটি ও WPML সাপোর্ট রয়েছে। এতে ২০টি হোমপেজ লেআউট, ফুল অ্যাডমিন প্যানেল অপশন, গ্রিড লেআউট, ৬টি মেন্যু স্টাইল, ডেডিকেটেড পোর্টফোলিও, ব্লগ টেমপ্লেট দেয়া আছে।

Uncode - Multi-Use WordPress Portfolio Theme

৭। Atelier - Creative Multi-Purpose WordPress Theme

যদিও Atelier একটি ইকমার্স থিম, এটিতে অনেক পোর্টফোলিও সাইট বানানোর ফিচার রয়েছে। এতে ওয়ান ক্লিক ইন্সটল, ১২টি ডেমো, মিনিমাল ডিজাইন, SEO অপটিমাইজেশন ও রেসপনসিভ ডিজাইন ফিচার করা হয়েছে।

এতে ১০ রকম হেডার টাইপ, ৫ রকম কার্ট অ্যানিমেশন, মাল্টিপল প্রডাক্ট ডিসপ্লে টাইপ ও ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ পেজ বিল্ডার রয়েছে। এই থিম Visual Composer কম্প্যাটিবল, এতে ব্লগ ও ফোলিওর জন্য অনেক রকম পেজ টাইপ আছে। এতে শর্টকোড, RTL সাপোর্ট, মেগা মেন্যুও ব্যবহার করা যায়।

Atelier - Creative Best WordPress Theme

৮। Rhythm - Best Flexible Portfolio WordPress Theme

Rhythm আরেকটি মাল্টি পারপাস থিম যেটা দিয়ে ভালো পোর্টফোলিও বানানো যায়। এতে মেগা মেন্যু, ফুলস্ক্রিন মেন্যু, সাইড মেন্যু সহ মাটিপল পেজ লেআউট আছে।

এই থিমের সাথে ভিজুয়াল কম্পোজার, রেভোলিউশন স্লাইডার, ১০টি ব্লগ পেজ ও মাল্টিপল শপ পেজ আছে। এতে ৩৮টি ডেমো আছে, আছে ওয়ান ক্লিক ইন্সটলেশন, থিম অপশন প্যানেল ও গুগল ফন্ট।

এতে ৪০ টি প্রিমেড পোর্টফোলিও পেজ আছে যা দিয়ে যে কোন রকমের পোর্টফোলিও বানানো যায়।

Rhythm - Best Portfolio WordPress Theme

৯। Scalia - Multi-Concept WordPress Theme for Creatives

Scalia আরেকটি বেস্টসেলিং থিম যেটি দিয়ে বিভিন্ন রকম বিজনেস, শপ ও পোর্টফোলিও সাইট বানানো যায়। এই থিমে অনেক পোর্টফোলিও লেআউট আছে, গ্যালারি অপশন আছে যা দিয়ে ক্রিয়েটিভ কাজ অনেক ফুটিয়ে তোলা যায় পোর্টফোলিও তে। এতে ৫ টাইপের ডিজাইনে প্রায় ১০০ ইউনিক পেজ টেমপ্লেট আছে।

৮ টি ব্লগ স্টাইল, মাল্টিপল শপ পেজ, কুইক ফাইন্ডার সহ আরও অনেক কিছু আছে। Visual Composer, মেগা মেন্যু সহ এতে রেসপনসিভ ডিজাইন ফিচার করা হয়েছে। এই থিমে WPML, স্লাইডার, and WooCommerce সাপোর্ট দেয়া আছে,।

Scalia - Multi-Concept Creative WordPress Theme

১০। Borderland - A Daring Multi-Concept WordPress Theme

Borderland অনেক রকমের সাইট বানাতেই ব্যবহার হয়। আমরা আলোচনা করব কিভাবে এটি পোর্টফোলিও সাইট বানাতে কাজে লাগানো যায়।

এতে ১২টি ডেমো, WooCommerce সাপোর্ট, Ajax পেজ ট্রানজিশন, Fullscreen Elated Slider, clients carousel, এবং টেস্টিমোনিয়াল শর্টকোড দেয়া আছে।

এই থিমে মাল্টিপল লেআউট, পোর্টফোলিও টেমপ্লেট, লেআউট টেমপ্লেট, হভার অ্যানিমেশন ব্লগ লেআউট, স্লাইডার ও কাস্টম পোষ্ট ফরম্যাট রয়েছে। প্যারালাক্স ব্যাকগ্রাউন্ড, ভিডিও ব্যাকগ্রাউন্ড সহ অন্যান্য ফিচারও আছে। এই থিমটি দিয়ে আজই একটি পোর্টোফোলিও বানিয়ে ফেলুন।

Borderland - Best WordPress Theme

১১। PhotoMe - Creative Photo Gallery Photography Theme

PhotoMe থিমটি ফোটোগ্রাফি পোর্টফোলিও বানানোর জন্য বেষ্ট। এতে ৫০টি গ্যালারি পোর্টফোলিও লেআউট আছে। একটা দিয়ে আপনার পোর্টোফোলিও সাইট হয়েই যাবে।

এতে ৮টি ডেমো আছে, আর পোর্টফোলিও কাস্টমাইজ করার জন্য এতে অনেক রকম অপশন ফিচার করা হয়েছে। কাস্টমাইজ করে নিজের ইচ্ছা মত ডিজাইনের সাইট এই থিম দিয়ে বানিয়ে নেয়া সম্ভব।

এই থিম লাইভ কাস্টমাইজার, রেসপনসিভ লেআউট, কন্টেন্ট বিল্ডার, ব্লগ টেমপ্লেট ও পেজ লেআউট ফিচার করে। Revolution Slider, WooCommerce সাপোর্ট করে। সাথে ডকুমেন্টেশন ও সাপোর্ট দেয়া হয়। PhotoMe একটা ফিচার রিচ থিম যেটা ফোটোগ্রাফি পোর্টফোলিওর জন্য পারফেক্ট!

PhotoMe - Creative Photo Gallery Photography Theme

১২। Photography- Photography WordPress Portfolio Theme

Photography থিমটি ফোটোগ্রাফারদের জন্য বানানো এটা নাম দেখেই বোঝা যায়। এই রেসপনসিভ থিমে ২৪টি ডেমো আছে, ডার্ক বা লাইন স্টাইল অপশন আছে, প্রায় ৭০টির মত পোর্টোফোলিও টেমপ্লেট আছে - যেটা কাজ ডিসপ্লে করে তুলতে ফোলিও সাইটের সহায়তা করে।

এই থিমে  infinite scroll, photo proofing section সহ password protection, লাইভ কাস্টমাইজার সাপোর্ট, কন্টেন্ট বিল্ডার ও ৮টি মেন্যু লেআউট ফিচার করা হয়েছে। থিমের সাথে সাপোর্ট, ডকুমেন্টেশন ও প্রফেশনাল ফাইলও দেয়া হয়। এখনি আপনার সাইট বানানো শুরু করে দিতে পারেন।

Photography - Photography WordPress Portfolio Theme

১৩।। Kinetika - Fullscreen Creative Photography WP Theme

Kinetika একটি ফুলস্ক্রিন ফটোগ্রাফি থিম, এতে অনেক গ্যালারি অপশন ফিচার করা হয়েছে। এটি দিয়ে অনেক ভালো পোর্টফোলিও বানানো যায়। আপনি ফোটোগ্রাফার হলে, এই থিমটি আপনার সাইট বানানোর জন্য একটি চমৎকার চয়েস।

এতে প্রোমোশন বক্স, পোর্টফোলিও, ব্লগ ক্যারোসল, ফুলস্ক্রিন স্লাইড শো, ভিডিও ইত্যাদি ফিচার করা হয়েছে। আরও পাবেন স্লাইড শো টেক্সট, মাল্টিপল হেডার, ভিডিও পেজ ব্যাকগ্রাউন্ড ফুলস্ক্রিন মেন্যু ইত্যাদি। এই থিমে Revolution Slider, WooCommerce, WPML সাপোর্ট আছে, এবং SEO অপটিমাইজেশনও রয়েছে। 

Kinetika - Best Photography WP Theme

১৪। Foundry - Highly-Flexible Wordpress Portfolio Theme

Foundry আরেকটি মাল্টি পারপাস থিম যেটি দিয়ে ইমপ্রেসিভ পোর্টফলিও বানানো যায়। এটি ফ্ল্যাট, রেসপনসিভ, প্রফেশনাল ডিজাইনের থিম, এটি কাস্টমাইজ করা অনেক সহজ। এতে ভিসুয়াল কম্পোজার দিয়ে সহজেই পেজ বিল্ডিং কম্পোনেন্টের সাহায্যে কাস্টমাইজেশন করা যায়। 

এতে ফুলউইড, বক্সড লেআউট, রেডি টু ইউজ ডেমো পেজ সহ অনেক ডিসপ্লে অপশন আছে। এতে ২০টির বেশি হোমপেজ ডিজাইন রয়েছে, কামিং সুন পেজ, মেগা মেন্যু ও মাল্টিপল মেন্যু স্টাইল রয়েছে। এতে ওয়ানক্লিক কালার কাস্টমাইজেশন অপশন আছে। এতে গুগল ফন্ট, পেজ নোটিফিকেশন, WooCommerce কম্প্যাবিলিটি, ডকুমেন্টেশন সহ ভিডিও টিউটোরিয়াল ফিচার এই থিমে আছে।

এই থিম দিয়ে অনেক তাড়াতাড়ি একটি সাইট বানিয়ে পোর্টফোলিওর মাধ্যমে নিজের কাজ প্রফেশনালি শেয়ার করা যায়।

Foundry - Highly-Flexible Wordpress Portfolio Theme

১৫। Vigor - A Fresh WordPress Theme for Creative Folios

শেষ থিমটি হচ্ছে বেষ্ট সেলিং ওয়ার্ডপ্রেস থিম Vigor। এই থিম সহজেই কাস্টমাইজ করে নজরকাড়া পোর্টফোলিও বানানো যায়। সুন্দর পোর্টফোলিও বানাতে চাইলে এই থিমটি সিলেক্ট করা উচিৎ।

এতে একটি প্রফেশনাল অ্যাডমিন ইন্টারফেস, মাল্টিপল হেডার, স্লাইডার, প্যারালাক্স, অ্যানিমেশন, মেসনারি গ্যালারি, ফুলস্ক্রিন মেন্যু, মেগা মেন্যু ও ভিডিও ব্যাকগ্রাউন্ড ফিচার করা হয়েছে। মোটামুটি আর যা লাগে যেমন, LayerSlider, Visual Composer, পোর্টফোলিও লিস্ট, স্লাইডার, ক্লায়েন্ট ক্যারোসল ইত্যাদি সবই দেয়া আছে এতে।

Vigor - WordPress Theme for Creative Folios

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার করে একটি পোর্টফোলিও সাইট বানাবেন

১। থিম ইন্সটল করুন

আপনার পছন্দের থিমটি নির্বাচন করে, সেটি ইন্সটল করুন। এ ব্যাপারে সাহায্য পেতে এই গাইডটি পড়ুন theme installation best practices

চাইল্ড থিম বানিয়ে এরপর কাস্টমাইজেশন শুরু করুন। এতে করে আসল থিম ইন্ট্যাক্ট থাকে।

২। থিমের কাস্টমাইজেশন সেটিংস ব্যবহার করুন

আর কাস্টমাইজেশনের জন্য আপনার থিমটি কিভাবে কাস্টমাইজ করে তা শিখে ফেলুন। সব ভালো থিমের সাথে ডকুমেন্টেশন দেয়া থাকে। সেটা দেখে দেখে ছোটখাটো কাস্টমাইজেশন নিজে করে নেয়া যায়।

শুধুমাত্র থিমের লাইভ কাস্টমাইজার ও অপশন প্যানেল থেকেই অনেক রকম অসাধারণ কাস্টমাইজেশন করে ফেলা সম্ভব।

৩। পোর্টফোলিও থিম কাস্টমাইজ করুন

থিমের ডকুমেন্টেশন পড়তে গেলে, আপনি খুঁজে পাবেন কাস্টমাইজেশনের কাজ কিভাবে শুরু করতে হয়। ওই নিয়ম দেখে বুঝে সাইজ, ফরম্যাট ও লেআউট কাস্টমাইজ করা শুরু করুন। এরপর দেখে নিন পোর্টফোলিও সাইটটি দেখতে কেমন হল।

ঠিক মত ফরম্যাটিং না করলে পোর্টফোলিও এর লেআউট ঠিক থাকবে না। "ঠিক নাই" মনে হবে। এটি এড়াতে ইমেজের সাইজ সুবিধা মত রিসাইজ ও ফরম্যাট করে নিন। সাইটের কাজ শেষ হলে রেজাল্ট দেখে এত ঝামেলার কথা ভুলে যাবেন।

৪। পোর্টপোলিও নিয়মিত আপডেট করা

সাইট বানানো শেষে, লাইভ করার পর সাইট নিয়মিত আপডেট করুন। প্রতি মাসের কাজ থেকে কিছু জিনিষ বেছে রাখুন, সেগুলা সাইটে দেয়ার চেষ্টা করুন। এতে করে সাইটের চেহারা সব সময় হালনাগাদ থাকবে।

সঠিক ওয়ার্ডপ্রেস পোর্টফোলিও থিমটি এখনি নির্বাচন করুন!

একটি পোর্টফোলিও সাইট তৈরি করা অনেক কঠিন কাজ। কিন্তু আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস পোর্টফোলিও থিম দিয়ে এই কাজ করা অনেক সহজ হয়ে যায়। একটু ঘেঁটে দেখলে একটা পার্ফেক্ট থিম খুঁজে পেয়েই যাবেন যেটা দিয়ে আপনার সাইট পার্ফেক্ট হবে। ThemeForest এ অনেক থিম রয়েছে, এখানে আমাদের গ্লোবাল কমিউনিটির ডিজাইনাররা থিম বানিয়ে বিক্রি করেন।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Looking for something to help kick start your next project?
Envato Market has a range of items for sale to help get you started.